বিষয়বস্তুতে চলুন

আচরণ

উইকিউক্তি, মুক্ত উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন থেকে

আচরণ বা ব্যবহার হল কোনো পরিবেশে ব্যক্তি, জীব, ব্যবস্থা বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার কার্যকলাপ এবং পদ্ধতির পরিসর। এই ব্যবস্থাগুলোর মধ্যে অন্যান্য ব্যবস্থা বা জীবের পাশাপাশি নির্জীব শারীরিক পরিবেশ অন্তর্ভুক্ত হতে পারে।

এটি অভ্যন্তরীণ বা বাহ্যিক, সচেতন বা অবচেতন, প্রকাশ্য বা গোপন, এবং স্বেচ্ছায় বা অনিচ্ছাকৃত বিভিন্ন উদ্দীপনা বা নিবেশের প্রতি ব্যবস্থা বা জীবের সমন্বিত প্রতিক্রিয়া। আচরণ তথ্যবিজ্ঞান দৃষ্টিকোণ থেকে, একটি আচরণ কর্তা, ক্রিয়াকলাপ, মিথস্ক্রিয়া, এবং তাদের বৈশিষ্ট্য নিয়ে গঠিত। এটি একটি আচরণ ভেক্টর হিসাবে প্রকাশ করা যেতে পারে।

উক্তি[সম্পাদনা]

  • মানুষের আচরণ প্রধানত তিনটি উৎস থেকে নিয়ন্ত্রিত হয়। যথা: ইচ্ছা, আবেগ ও জ্ঞান।
  • প্রকৃতপক্ষে মানুষ ভালো। মানুষকে স্নেহ ও নিরাপত্তা দিন এবং তারা স্নেহ দেবে এবং তাদের অনুভূতি ও আচরণে নিরাপদ থাকবে।
    • আব্রাহাম ম্যাসলো
  • আমার মনে হয় মানুষ ইচ্ছা করে খারাপ আচরণ করে না। যারা করে তারা প্রধানত নিরাপত্তাহীনতা থেকে খারাপ আচরণ করে থাকে।
    • ডেব্রা উইঙ্গার।
  • মনোভাব খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, আপনার আচরণ আপনার অনুভূতিকে বিকিরণ করে।
    • লোউ ফ্রিঙ্গো।
  • জীবন কঠিন. জীবন কন্টকাকীর্ণ। জীবন আপনাকে আঘাত করবে। কিন্তু যখন আপনি আপনার মনোভাব পরিবর্তন করেন, আপনি আপনার আচরণ পরিবর্তন করেন। যখন আপনার আচরণ পরিবর্তন হয়, তাই আপনার ফলাফলও পরিবর্তিত হবে।
    • উইল হার্ড।
  • একজন জ্ঞানী ব্যক্তি তার উপর করা যেকোন অপমান থেকে উচ্চতর অবস্হানে আসীন থাকেন এবং অপ্রীতিকর আচরণের সর্বোত্তম উত্তর হল ধৈর্য এবং সংযম।
    • মলিডিয়ার।
  • মানুষের চেহারা দিয়ে তাকে বিচার করা সবচেয়ে নিকৃষ্ট একটি কাজ। মানুষের আসল পরিচয় তার আচরণে, চেহারা তে নয়।
    • দালাই লামা।
  • আপনি যদি নিজেকে বদলে ফেলতে চান, তবে সবার প্রথমে নিজের আচরণকে বদলে ফেলুন। কারণ আপনার সবটুকু জুড়ে আপনার আচরণই থাকে। আপনার পরিচায়ক আপনার আচরণ।
    • উইলিয়াম গ্ল্যাসার।
  • আপনার চেহারা কিংবা জন্মস্হান, এগুলো নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা আপনার থাকে না, যা থাকে সেটা হলো নিজের আচরণকে নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা৷ সেটার পরিপূর্ণ ব্যবহার করুন।
    • মার্কোস ডিঙ্গার।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]