বিষয়বস্তুতে চলুন

আডলফ হিটলার

উইকিউক্তি, মুক্ত উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন থেকে
আডলফ হিটলার (১৯৩৮)

আডলফ হিটলার (adɔlf ˈhɪtlɐ; ১৮৮৯ - ১৯৪৫) অস্ট্রীয় বংশোদ্ভূত জার্মান রাজনীতিবিদ যিনি ন্যাশনাল সোশ্যালিস্ট জার্মান ওয়ার্কার্স পার্টির নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। হিটলার ১৯৩৩ থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত জার্মানির চ্যান্সেলর এবং ১৯৩৪ থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত সে দেশের ফিউরার ছিলেন। হিটলার প্রথম বিশ্বযুদ্ধে সৈনিক হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। পরবর্তীকালে ভাইমার প্রজাতন্ত্রে নাৎসি পার্টির নেতৃত্ব লাভ করেন। অভ্যুত্থান করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছিলেন যে কারণে তাকে জেল খাটতে হয়েছিল। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে হিটলার এমন একটি বৈদেশিক নীতি গ্রহণ করেন যাতে সকল "লেবেনস্রাউম" (জীবন্ত অঞ্চল) দখল করে নেয়ার কথা বলা হয়। ১৯৩৯ সালে জার্মানরা পোল্যান্ড অধিকার করে এবং ফলশ্রুতিতে ব্রিটেন ও ফ্রান্স জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে যা ২য় বিশ্বযুদ্ধ হিসেবে পরিচিত।

উক্তি[সম্পাদনা]

  • যদি কোন মিথ্যাকে তুমি বারবার এবং সাবলীলভাবে বলতে পারো তবেই তা বিশ্বাসযোগ্য হবে।
  • একজন খ্রিস্টান হিসেবে প্রতারিত হওয়া আমার কর্তব্য নয়, কর্তব্য হলো সত্য এবং ন্যায়ের জন্য যুদ্ধ করা।
  • আমি তোমাদের ভালোবাসায় না গিয়ে যুদ্ধে যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছি, কারন যুদ্ধে তুমি হয় বাঁচবে না হয় মরবে, কিন্তু ভালোবাসলে না পারবে বাঁচতে না পারবে মরতে।
  • একজন বড় মিথ্যাবাদী, একজন বড় জাদুকরও।
  • অপছন্দের চেয়ে ঘৃণার স্থায়িত্ব বেশি।
  • জার্মানি হবে পৃথিবীর সর্বশক্তিমান নয়তো কিছুই নয়।
  • সন্ত্রাস, নাশকতা,হত্যা এবং বিস্ময়ের মধ্য দিয়ে শত্রুর মনোবল ভেঙে দাও, এটাই যুদ্ধের ভবিষ্যৎ।
  • যে ব্যাক্তি আকাশকে সবুজ দেখে এবং জমিনকে আঁকে নীল রঙে তাকে নপংসুক করে দেয়া কর্তব্য।
  • শক্তি প্রতিরোধে নয়, আক্রমণেই প্রকাশিত হয়।
  • কে বলেছে আমি ঈশ্বরের দ্বারা সুরক্ষিত নই।
  • যে যুবক ভবিষ্যৎকে জয় করে, সে হয় একা।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]