বিষয়বস্তুতে চলুন

কামিনী রায়

উইকিউক্তি, মুক্ত উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন থেকে
সকলের তরে সকলে আমরা,
প্রত্যেকে আমরা পরের তরে।—
কামিনী রায়

কামিনী রায় (১২ অক্টোবর ১৮৬৪ - ২৭ সেপ্টেম্বর ১৯৩৩) একজন প্রথিতযশা বাঙালি কবি, সমাজকর্মী ও লেখিকা। তিনি তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের প্রথম মহিলা স্নাতক ডিগ্রিধারী ব্যক্তিত্ব। তাঁর রচিত কবিতাগুলিতে জীবনের সুখ-দুঃখ, আশা-আকাঙ্ক্ষা, আনন্দ-বেদনার সহজ-সরল ও সাবলীল প্রকাশ ঘটেছে। তাঁর লেখা উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে -আলো ও ছায়া, নির্মাল্য, পৌরাণিকী, গুঞ্জন, মাল্য ও নির্মাল্য, অশোক সঙ্গীত,অম্বা (নাট্যকাব্য), দীপ ও ধূপ, জীবন পথে,একলব্য, দ্রোণ-ধৃষ্টদ্যুম্ন, শ্রাদ্ধিকী প্রভৃতি। তিনি একসময় "জনৈক বঙ্গমহিলা" ছদ্মনামে লিখতেন।

উক্তি[সম্পাদনা]

  • আপনারে লয়ে বিব্রত রহিতে
    আসে নাই কেহ অবনী ’পরে,
    সকলের তরে সকলে আমরা,
    প্রত্যেকে আমরা পরের তরে।
    • সুখ কবিতা, আলো ও ছায়া- কামিনী রায়, চতুর্থ সংস্করণ, মূদ্রক- চেরি প্রেস, প্রকাশস্থান- কলকাতা, প্রকাশসাল- ১৩১১ বঙ্গাব্দ, পৃষ্ঠা ১১
  • একে একে একে হায়! দিনগুলি চলে যায়,
    কালের প্রবাহ পরে প্রবাহ গড়ায়,
    সাগরে বুদ্বুদ্ মত উন্মত্ত বাসনা যত
    হৃদয়ের আশা শত হৃদয়ে মিলায়,
    আর দিন চলে যায়।
    • আর দিন চলে যায়, আলো ও ছায়া- কামিনী রায়, চতুর্থ সংস্করণ, মূদ্রক- চেরি প্রেস, প্রকাশস্থান- কলকাতা, প্রকাশসাল- ১৩১১ বঙ্গাব্দ, পৃষ্ঠা ১২

কামিনী রায়কে নিয়ে উক্তি[সম্পাদনা]

  • বস্তুতঃ কবিতা গুলির ভাবের গভীরতা, ভাষার সরলতা, রুচির নির্ম্মলতা, এবং সর্ব্বত্র হৃদয়গ্রাহিতা গুণে আমি নিরতিশয় মোহিত হইয়াছি।
    • আলো ও ছায়া কাব্যগ্রন্থের ভূমিকায় হেমচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়-এর মন্তব্য, আলো ও ছায়া- কামিনী রায়, চতুর্থ সংস্করণ, মূদ্রক- চেরি প্রেস, প্রকাশস্থান- কলকাতা, প্রকাশসাল- ১৩১১ বঙ্গাব্দ।
উইকিসংকলন
উইকিসংকলন
উইকিসংকলনে এই লেখক রচিত অথবা লেখক সম্পর্কিত রচনা রয়েছে: