বিষয়বস্তুতে চলুন

পহেলা বৈশাখ

উইকিউক্তি, মুক্ত উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন থেকে

পহেলা বৈশাখ বা পয়লা বৈশাখ (বাংলা পঞ্জিকার প্রথম মাস বৈশাখের ১ তারিখ) বঙ্গাব্দের প্রথম দিন, তথা বাংলা নববর্ষ। দিনটি সকল বাঙালি জাতির ঐতিহ্যবাহী বর্ষবরণের দিন। দিনটি বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নববর্ষ হিসেবে বিশেষ উৎসবের সাথে পালিত হয়। ত্রিপুরায় বসবাসরত বাঙালিরাও এই উৎসবে অংশ নিয়ে থাকে। পহেলা বৈশাখ বাংলাদেশে জাতীয় উৎসব হিসেবে পালিত হয়ে থাকে। সে হিসেবে এটি বাঙালিদের একটি সর্বজনীন লোকউৎসব হিসাবে বিবেচিত। পহেলা বৈশাখ উদযাপনের শুরু হয়েছিল পুরান ঢাকার মুসলিম মাহিফরাস সম্প্রদায়ের হাতে।

মঙ্গল শোভাযাত্রা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা
মঙ্গল শোভাযাত্রা, টিএসসি
বৈশাখী মেলা

উক্তি[সম্পাদনা]

  • পয়লা বৈশাখ বা বাংলা নববর্ষ বাঙালির এক অনন্য উৎসব, তার অন্যতম জাতীয় উৎসব। এর ঐতিহ্য সুপ্রাচীন ও গৌরবমণ্ডিত।
    • কবীর চৌধুরী, জয়তু পহেলা বৈশাখ, বাংলাদেশের উৎসব: নববর্ষ, পৃষ্ঠা ২০০
  • এসো, এসো, এসো হে বৈশাখ
    তাপসনিশ্বাসবায়ে মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে,
    বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক
    যাক পুরাতন স্মৃতি, যাক ভুলে যাওয়া গীতি,
    অশ্রুবাষ্প সুদূরে মিলাক।
    মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা,
    অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা।
    • এসো হে বৈশাখ, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [১]
  • দিন চলে যায় ঋতুর খেয়ায়, আসে ও যায় বছর মাস কারো কাটে কষ্টে আবার কেউ বা করে সুখেই বাস বদল খেলায় রঙিন আলোয় সুবজ পাতায় লাগে দোল বছর ঘুরে বোশেখ আসে একতারা ও বাজে ঢোল।
    • বোশেখ আসে, শাহনারা রশিদ[২]
  • বৈশাখ হে, মৌনী তাপস, কোন্‌ অতলের বাণী এমন কোথায় খুঁজে পেলে। তপ্ত ভালের দীপ্তি ঢাকি মন্থর মেঘখানি এল গভীর ছায়া ফেলে।
    • রবীন্দ্র রচনাবলী, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর , পৃষ্ঠা ২০

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]