বিষয়বস্তুতে চলুন

সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়

উইকিউক্তি, মুক্ত উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন থেকে

সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায় একজন জনপ্রিয় বাঙালি লেখক যিনি মূলত রম্য রচনার জন্য খ্যাত। তিনি বেশ কিছু উপন্যাস, ছোটগল্প ও প্রবন্ধ রচনা করেছেন। তার সবথেকে বিখ্যাত উপন্যাস লোটাকম্বল যা দেশ পত্রিকায় ধারাবাহিক ভাবে প্রকাশিত হয়েছিল।

উক্তি[সম্পাদনা]

  • যেহেতু আমরা দ্বিপদ সেই হেতু আমরা চতুষ্পদদের সুযোগ সুবিধা থেকে সম্পূর্ণ বঞ্চিত। দিন-দিন আমাদের বঞ্চনা বেড়েই চলেছে। অন্যান্য পশুরা জন্মেই স্বাধীন, আমরা কিন্তু জন্মেই পরাধীন। দেহের দাসত্ব, পরিবারের দাসত্ব, সমাজের নামের দাসত্ব, অর্থনীতির দাসত্ব। সবচেয়ে বড় ক্লেশ হল এই দাসত্ব।
    • সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়, 'মনুষ্যক্লেশ নিবারণ সমিতি'র প্রথম অধিবেশনে।
  • যে-কোনও পাঠ্যবস্তুই মনুষ্যক্লেশের কারণ, যে-কোনও অপাঠ্যই চিত্তবিনোদনের হেতু। যে-কোনও মানুষকে ডেকে জিগ্যেস করুন, কজনের ছাত্রজীবন সুখের ছিল।
    • সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়, 'মনুষ্যক্লেশ নিবারণ সমিতি'র পঞ্চম অধিবেশনে।
  • আমার মরুভূমিতে মরূদ্যান ছিল না, ছিল মরীচিকা। সকলের মুখই কঠিন কঠোর। নিজের মুখ যতই বিষণ্ণ করি না কেন অন্যের মুখে স্নেহের নরম ছায়া নামে না। একটু ভালবাসা কোথায় পাওয়া যায়?
    • "লোটাকম্বল"-অখণ্ড সংষ্করণ-১ম খণ্ড(১ম অধ্যায়)। প্রকাশকাল- জুন, ২০০৯ ,প্রকাশক - আনন্দ পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেড, পৃষ্ঠা -০৯
  • জগৎ যেমন চলছিল, ঠিক সেইরকমই চলছে। একজন মানুষের যাই হোক না কেন, বহু মানুষের তাতে কিছু যায় আসে না। পৃথিবী বড় উদাসীন। রাজপথ খোলা ফিতের মতো সুদূরে উধাও। ব্যস্ত মানুষ। ব্যস্ত যানবাহন। সবাই যাচ্ছে। কোথাও-না-কোথাও যাচ্ছে।
    • "লোটাকম্বল"- অখণ্ড সংষ্করণ-২য় খণ্ড(১ম অধ্যায়)। প্রকাশকাল- জুন, ২০০৯ ,প্রকাশক - আনন্দ পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেড, পৃষ্ঠা -০৯
  • অতীত, বর্তমান, ভবিষ্যৎ। তিনটিই শিশু। দেহ দিয়ে আমরা কাল মাপি–আমার শৈশব, যৌবন, বার্ধক্য। আসলে এসব কিছুই নেই। স্তব্ধ বিশাল মহাকাল। তিনি চিরকিশোর।
    • "গুহা"- উপন্যাস, সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়।

সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায় সম্পর্কে উক্তি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]