বিষয়বস্তুতে চলুন

হোসাইন ইবনে আলী

উইকিউক্তি, মুক্ত উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন থেকে

হোসাইন ইবনে আলী (আরবি: ٱلْحُسَيْن ٱبْن عَلِيّ, প্রতিবর্ণীকৃত: Al-Ḥusayn ibn ʿAlī‎; ১০ জানুয়ারি ৬২৬ খ্রিষ্টাব্দ – ১০ অক্টোবর ৬৮০ খ্রিষ্টাব্দ) ছিলেন ইসলামের নবি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের দৌহিত্র এবং আলি রদিয়াল্লাহুয়ানহু ও ফাতিমার রদিয়াল্লাহুয়ানহার পুত্র। মুসলমানরা তাঁকে আহল আল-কিসা ও আহল আল-বাইতের একজন সদস্য হিসেবে অত্যন্ত শ্রদ্ধা করে। তিনি সুন্নি ইসলামের একজন গুরত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব এবং শিয়া ইসলামের তৃতীয় ইমাম।

তুমি কি মনে কর যে তুমি আমাকে মৃত্যু দিয়ে ভীত করতে পারবে? আমাকে হত্যার চেয়ে খারাপ বিপর্যয় ও তোমার সাথে ঘটতে পারে কি?

কারবালার ময়দানের উক্তি[সম্পাদনা]

  • তুমি কি মনে কর যে তুমি আমাকে মৃত্যু দিয়ে ভীত করতে পারবে? আমাকে হত্যার চেয়ে খারাপ বিপর্যয় ও তোমার সাথে ঘটতে পারে কি? তোমাকে কি বলতে হবে আমি তা জানি না। আমি তোমাকে কেবলমাত্র সেইভাবে সম্বোধন করতে পারি যেভাবে আল-আউসের ভাই তার চাচাতো ভাইকে সম্বোধন করেছিলেন যখন তিনি আল্লাহর রাসূল রসূল (নবী মুহাম্মাদ) কে সাহায্য করতে যাচ্ছিলেন।
    • আল-হুর ইবন ইয়াজিদ আল-তামিমীকে উত্তরে , নবী ও রাজাদের ইতিহাস, ভলিউম. ১৯, পৃষ্ঠা.৯৭
    • ইবনে আ’থাম আল-কুফি, আল-ফুতুহ, ভলিউম.৫, পৃষ্ঠা. ১৮-১৯
  • আমি কখনও বিদ্রোহী বা অত্যাচারী হিসাবে অনরর্থক বিদ্রোহ করিনি, তবে আমি আমার নানা মুহাম্মাদের জাতির জন্য সংস্কার চেয়েছি।আমার নানা এবং আমার পিতা ‘আলী ইবনে আবী তালিব’-এর রেওয়ায়েত অনুযায়ী আমি সৎকাজের আদেশ ও অসৎ কাজের নিষেধ করার চেষ্টা করেছি।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, ভলিউম.৪৪, পৃষ্ঠা. ৩২৯
  • হে লোকেরা, আল্লাহর রাসূল বলেছেন: যে ব্যক্তি এমন কোন আগ্রাসী অত্যাচারী শাসককে দেখে যে আল্লাহর হারামকে বৈধ করে,আল্লাহর বিধান লঙ্ঘন করে, নবীর ঐতিহ্যের বিরোধিতা করে, আল্লাহর বান্দাদের প্রতি জুলুম করে এবং কথায় ও কাজে আল্লাহর বিরোধিতা করে। নিশ্চয়ই আল্লাহ সেই অত্যাচারীকে তার প্রাপ্য (জাহান্নামে) স্থান দেবেন।
    • খাওয়ারযমী, মাকতাল আল-হুসাইন, ভলিউম.১, পৃষ্ঠা. ২৩৪
  • সৃষ্টিকর্তার অসন্তুষ্টির মূল্যে মানুষের সম্মতিতে জয়ী মানুষদের কখনও উদ্ধার করা হবে না।
    • খাওয়ারযমী, মাকতাল আল-হুসাইন, ভলিউম.১, পৃষ্ঠা. ২৩৪
  • আমাদের শত্রু আমার নানা মুহাম্মাদ এরও শত্রু।
    • আল-শাহিদ আল-তুস্তারি, ইহকাকুল-হক, ভলিউম.১১, পৃষ্ঠা. ৫৯২
  • হে আল্লাহ! আপনি নিশ্চয়ই জানেন যে আমরা যা কিছু করেছি তা পার্থিব পদ লাভের প্রতিযোগিতা ছিল না এবং দুনিয়ার মূল্যহীন আকর্ষণের জন্যও নয়। বরং ধর্মীয় পথের দেখাতে এবং আপনার ভূমি থেকে দুর্নীতি দূর করতে, যাতে নির্যাতিতরা নিরাপদ বোধ করে এবং আপনার আদেশ নিষেধ অনুসারে চলে।
    • ইবনে শুবা আল-হাররানী, তুহাফ আল-উকুল, পৃষ্ঠা. ২৩৯

প্রজ্ঞা সম্পর্কিত উক্তি[সম্পাদনা]

  • শিক্ষা গ্রহণ মানুষের প্রজ্ঞাকে লালন করে।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, ভলিউম.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২৮
  • অভিজ্ঞতার বৃদ্ধি, মানবজাতির প্রজ্ঞা বৃদ্ধি করে।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, ভলিউম.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২৮
  • সত্যকে অনুসরণ করা ছাড়া জ্ঞান পূর্ণ হয় না।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, ভলিউম.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২৮


  • একজন জ্ঞানী মানুষের লক্ষণ হল তার নিজের কথার সমালোচনা করা এবং বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে অবহিত থাকা।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, ভলিউম.৭৮, পৃষ্ঠা. ১১৯
  • জ্ঞান বোধগম্যতাকে সহজ করে এবং অভিজ্ঞতা প্রজ্ঞা বাড়ায়।
    • মুহাম্মদী রেশহরী, মুহাম্মদ (২০১০)। মিজান আল হিকমাহ। উৎস: দারুল হাদিস। পৃষ্ঠা ১৮৬। 
  • বিদ্বান ব্যক্তির দুটি লক্ষণ হল: অন্যের করা সমালোচনা মেনে নেয়া এবং বক্তৃতাদাননিদ্যা ও বিতর্কের নিয়ম নীতি সম্পর্কে জ্ঞান থাকা।
    • ইবনে শুবা আল-হাররানী রহ, তুহাফুল উকুল, পৃষ্ঠা. ২৫১
  • জ্ঞানী ব্যক্তি তার সাথে কথা বলে না যে তাকে প্রত্যাখ্যান করবে বলে মনে করে,তার কাছে সে কিছু চায় না যে তাকে দেবে না বলে ভয় করে এবং তার উপর সে আশা রাখে না যাকে সে বিশ্বাস করে না ।
    • রায়হানতুর রাসুল, পৃষ্ঠা. ৫৫

সাধারণ উক্তি[সম্পাদনা]

  • যদি তুমি ধর্মে বিশ্বাস না কর এবং পরকালকে ভয় না পাও তবে অন্তত অত্যাচার ও অহংকার থেকে মুক্ত থাক।
    • বিহারুল আনোয়ার, ভলিউম. ৪৫, পৃষ্ঠা. ৫১
  • মানুষ দুনিয়ার দাস। যতদিন তারা অনুকূল ও আরামদায়ক জীবনযাপন করে ততদিন তারা ধর্মীয় নীতির প্রতি অনুগত থাকে। যাইহোক, কঠিন সময়ে ও পরীক্ষার সময়ে সত্যিকারের ধার্মিক মানুষ দুষ্প্রাপ্য।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১১৭
  • যে তোমার দোষ তোমার সামনে আয়নার মত প্রকাশ করে সে তোমার প্রকৃত বন্ধু, আর যে তোমার সাথে চাটুকারিতা করে তোমার দোষ ঢেকে রাখে সে তোমার শত্রু।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২৮
  • অধঃপতিত জীবনের চেয়ে সম্মান সহ মৃত্যু শ্রেয়।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার,খন্ড.৪৪ পৃষ্ঠা. ১৯২
  • দুর্নীতিবাজদের সাথে মেলামেশা আপনাকে সন্দেহজনক লোক করে তোলে।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২২
  • সবচেয়ে উদার সেই ব্যক্তি যে তাদেরও সাহায্য করে যারা তার কাছে সাহায্যের আশা করে না।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২১
  • সহনশীলতা মানুষের অলঙ্কার, প্রতিশ্রুতি পালন করা আভিজাত্যের লক্ষণ, এবং অন্যের সাথে বন্ধন একটি আশীর্বাদ।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২২
  • আপনি যখন হতাশ হন এবং উত্তরণের উপায় জানেন না, তখন কেবল নমনীয়তা এবং অসুবিধাগুলির প্রতি সংযম আপনাকে রক্ষা করবে।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২৮
  • একজন ব্যক্তির মধ্যে ধৈর্য একটি রত্নের মত জ্বল জ্বল করে।
    • মুহাম্মদী রেশহরী, মুহাম্মদ সা (২০১০)। মিজান আল হিকমাহ। উৎস: দারুল হাদিস। পৃষ্ঠা ২১৭। 

ধর্ম সম্পর্কিত উক্তি[সম্পাদনা]

  • যে দীর্ঘ জীবন পেতে এবং তার জীবিকা বৃদ্ধি করতে চান, তার নিজের আত্মীয়দের সাথে দেখা করা উচিত।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৪, পৃষ্ঠা.৯১
  • যে ব্যক্তি পাপপূর্ণ উপায়ে একটি লক্ষ্য অনুসরণ করে, সে সেই লক্ষ্য থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখবে এবং সে যাকে ভয় পেয়েছিল তার কাছে যাবে।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২০
  • মানুষের সম্মান ও মর্যাদা কেবল পুণ্য ও তাকওয়ার মধ্যে।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২৮
  • কোন ব্যক্তির মধ্যে এই পাঁচটি জিনিস না থাকলে তার মধ্যে কল্যাণ নেই। এগুলো হলো: বুদ্ধি, ধর্ম, শিষ্টাচার, লজ্জা এবং সদাচরণ।
    • রায়হানতুর রাসুল,পৃষ্ঠা. ৫৫
  • যে ব্যক্তি আল্লাহর অবাধ্যতার মাধ্যমে মানুষের সন্তুষ্টি কামনা করে, আল্লাহ তাকে মানুষের অধীন করে দেন।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১২৮
  • যারা কোন কিছু লাভের আশায় আল্লাহর উপাসনা করে, তারা প্রকৃত উপাসক নয়, তারা ব্যবসায়ী। যারা (শাস্তির ভয়ে) আল্লাহর ইবাদত করে, তারা দাস। এবং যারা তাদের স্রষ্টার প্রতি কৃতজ্ঞ হওয়ার জন্য আল্লাহর উপাসনা করে, তারাই স্বাধীন মানুষ এবং তাদের উপাসনাই সঠিক।
    • মজলিসি, বিহারুল আনোয়ার, খন্ড.৭৮, পৃষ্ঠা. ১১৭

হোসাইন ইবনে আলী সম্পর্কে অমুসলিমদের উক্তি[সম্পাদনা]

  • গান্ধীর মতে ইসলামের ঐতিহাসিক অগ্রগতি মুসলিম তরবারির ফল নয় বরং হোসেনের মতো মুসলিম সাধকদের আত্মত্যাগের ফল।
    • কারবালা পুনরুজ্জীবিতকরন: দক্ষিণ এশিয়ার স্মৃতিতে শাহাদাত, লিখেছেন সৈয়দ আকবর হায়দার, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস, পৃষ্ঠা. ১৭০

বিতর্ক খন্ডন[সম্পাদনা]

  • "যদি হোসেন তার পার্থিব আকাঙ্ক্ষা মেটানোর জন্য যুদ্ধ করেন, (যেমন কিছু খ্রিস্টান সমালোচকদের অভিযোগ) তাহলে কেন তার বোন, স্ত্রী এবং সন্তানেরা তার সাথে এসেছিল তা আমি বুঝতে পারি না। এটিই যুক্তি দেয় যে তিনি ইসলামের জন্য বিশুদ্ধভাবে আত্মত্যাগ করেছেন।"
    • আমির মুখতারের জীবনীতে চার্লস ডিকেন্সকে দায়ী করা বলা হয়েছে (গুলামালি ইসমাইল নাজি, পীরমহম্মদ ইব্রাহিম ট্রাস্ট, ১৯৭৩)।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

হাসান ইবনে আলী