বিষয়বস্তুতে চলুন

রঙ্গলাল বন্দ্যোপাধ্যায়

উইকিউক্তি, মুক্ত উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন থেকে
রঙ্গলাল বন্দ্যোপাধ্যায়

রঙ্গলাল বন্দ্যোপাধ্যায় (২১ ডিসেম্বর ১৮২৭ - ১৩ মে ১৮৮৭) একজন কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক এবং প্রবন্ধকার ছিলেন। ১৮২৭ সালে মাতুলালয়, বর্ধমান জেলার কালনার সন্নিকটস্থ হুগলী জেলার বাকুলিয়া নামক গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার আদি নিবাস বর্তমান হুগলী জেলার গুপ্তিপাড়া সন্নিকটস্থ রামেশ্বরপুর। কবি ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের সাহায্যে সংবাদ প্রভাকর পত্রিকায় তিনি সাহিত্য রচনা আরম্ভ করেন। ১৮৫৫ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত এডুকেশন গেজেট পত্রিকার সহঃ-সম্পাদক ছিলেন। সেই সময়ের এডুকেশন গেজেটে তার গদ্য এবং পদ্য দুই রকম রচনাই প্রকাশিত হত। ১৮৫২ সালে প্রকাশিত 'মাসিক সংবাদসাগর' ও ১৮৫৬ সালে প্রকাশিত সাপ্তাহিক 'বার্তাবহ' পত্রিকা দুটোতে তিনি সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি মূলত স্বদেশপ্রেমিক কবি হিসাবে খ্যাতি লাভ করেন। পদ্মিনী উপাখ্যান, কর্মদেবী, শূরসুন্দরী প্রভৃতি কাব্যগ্রন্থগুলি তার রচিত কাব্যগ্রন্থের মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

উক্তি[সম্পাদনা]

  • স্বাধীনতা হীনতায় কে বাঁচিতে চায় হে,
    কে বাঁচিতে চায়?
    দাসত্ব-শৃঙ্খল বল কে পরিবে পায় হে,
    কে পরিবে পায়?
    কোটিকল্প দাস থাকা নরকের প্রায় হে,
    নরকের প্রায়।
    দিনেকের স্বাধীনতা, স্বর্গ-সুখ তায় হে,
    স্বর্গসুখ তায়।৷
    • পদ্মিনী উপাখ্যান- রঙ্গলাল বন্দ্যোপাধ্যায়, শ্রীপূর্ণচন্দ্র মুখোপাধ্যায় দ্বারা মুদ্রিত ও প্রকাশিত, কলিকাতা, প্রকাশসাল- ১৯০৫ খ্রিস্টাব্দ (১৩১২ বঙ্গাব্দ), পৃষ্ঠা ৭৪

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

উইকিসংকলন
উইকিসংকলন
উইকিসংকলনে এই লেখক রচিত অথবা লেখক সম্পর্কিত রচনা রয়েছে: